আর চিন্তা নেই! পুরনো মান্থলি নিয়েই ওঠা যাবে ট্রেনে! যাত্রী সুবিধার্থে জানাল রেল

লকডাউনের পর থেকে প্রায় ৮ মাস অতিক্রম করে গেছে। এখনও পর্যন্ত লোকাল ট্রেন চালু করা যায়নি বাংলায়। সম্প্রতি রেল রাজ্য বৈঠকের পরিপ্রেক্ষিতে আট মাস পর লোকাল ট্রেন পরিষেবা চালু হচ্ছে। আগামী বুধবার থেকেই শিয়ালদহ শাখায় ৪৬ শতাংশ, হাওড়া ও দক্ষিণ-পূর্ব শাখায় প্রায় ১৫ শতাংশ ট্রেন চলাচল করবে। এই খবরটা নিত্যযাত্রীদের জন্য খুশির হলেও এই অবস্থায় মান্থলির মেয়াদ নিয়ে চিন্তিত অনেকেই। কারণ, এত দিন ট্রেন বন্ধ থাকায় তাদের পূর্বের মান্থলির মেয়াদ ফুরিয়ে গেছে। আবার নতুন করে মান্থলি করতে হবে কিনা বা নিউ নর্মালে নতুন করে কোনও নিয়ম আসবে কিনা তা নিয়ে চিন্তায় পড়েছেন যাত্রীরা। তবে সুখবর দিয়েছে রেল। পূর্বের যে দিনগুলি ট্রেন বন্ধ ছিল সেগুলির হিসাবে মান্থলি ধরা হবে না। সিজন টিকিটের সাথে মান্থলি যোগ করে দেওয়া যাবে।

শুক্রবার পূর্ব রেলের তরফে বিষয়টি বিস্তারিতভাবে জানানো হয়েছে। সেই মর্মে তারা একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করেছিল। ধরা যাক, কারও সিজন টিকিটের মেয়াদ ছিল ২১ এপ্রিল পর্যন্ত। ২১মার্চ তারিখের পর তিনি ট্রেনে যাতায়াতের সুযোগ পাননি কারণ সারা দেশ জুড়ে জনতা কার্ফু শুরু হয়। সেক্ষেত্রে আগামী ১১ নভেম্বর থেকে যখন ওই ব্যক্তি আবার ট্রেনে যাতায়াত শুরু করবেন তখন পরবর্তী ১ মাস তিনি ওই মান্থলি দেখিয়েই ট্রেনে চড়তে পারবেন। এর জন্য যে কাউন্টার থেকে মান্থলি কেটেছিলেন, সেই কাউন্টারে গিয়েই তা দেখিয়ে দিনক্ষণ বদল করাতে হবে। আগামী ৯ই নভেম্বর থেকে এই কাজ শুরু হবে।

উল্লেখ্য, নতুন দিনক্ষণ বসিয়ে তার মেয়াদ বদল করার জন্যও দীর্ঘ লাইন পড়বে কাউন্টারে সে কথা আগে থেকেই আন্দাজ করে রেখেছে রেল । সে কারণে ট্রেন চালুর দুইদিন আগে থেকেই মান্থলি পুনর্নবীকরণের কাজ চালু করছে রেল। এছাড়া ৯ তারিখ থেকে কাউন্টারে নতুন করে মান্থলি কাটা যাবে। ১১ তারিখ থেকে মিলবে রোজকার টিকিটও। এখানে কোনো নতুন নিয়ম আনা হয়নি।

প্রসঙ্গত, শুক্রবারে নিউ নর্মালে ট্রেনের সংখ্যা ও নতুন সময়সূচির বিজ্ঞপ্তি বেরিয়েছে। আগে শিয়ালদহ শাখায় দিনভর চলত ৯১৩ টি ট্রেন। এখন চলবে ৪১৩ টি লোকাল। হাওড়া শাখায় ৪৩৮ টির বদলে ২০২টি লোকাল চলবে। তবে সবই নির্ভর করছে যাত্রীদের চাহিদার উপর। যাত্রী সংখ্যা বাড়লে ট্রেনও বাড়ানো হবে পরে।

Comments
Loading...