নীতীশের দল থেকে বহিষ্কৃত প্রশান্ত কিশোর

অবশেষে সরকারিভাবে জেডিইউ থেকে বহিষ্কারই করা হল প্রশান্ত কিশোর এবং পবন ভার্মাকে। বুধবার এক বিবৃতিতে সহ সভাপতি প্রশান্ত কিশোর ও সাধারণ সম্পাদক পবন ভার্মাকে বহিষ্কারের কথা জানিয়ে দেন জেডিইউর মুখ্য সম্পাদক কে সি ত্যাগী।
নয়া নাগরিকত্ব আইন সহ একাধিক ইস্যুতে ট্যুইটের জেরে প্রশান্ত কিশোরের সঙ্গে জেডিইউ প্রধান ও বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারের দূত্ব তৈরি হয়েছিল। যা মঙ্গলবার চরম তিক্ততার আকার নেয়। প্রশান্ত কিশোর সম্পর্কে নীতিশের বার্তা ছিল, দলে থাকতে চাইলে থাকবেন, যেতে চাইলেও যেতে পারেন। তিনি এও জানিয়ে দেন, বিজেপির প্রাক্তন সভাপতি অমিত শাহের কথাতেই প্রশান্তকে দলে নিয়েছিলেন তিনি। এর কিছুক্ষণের মধ্যেই ট্যুইটারে নীতীশের মন্তব্যের বিরোধিতা করেন প্রশান্ত কিশোর লেখেন, মিথ্যে বলছেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী।
বুধবার নীতীশ কুমারের দল বিবৃতি দিয়ে প্রশান্ত কিশোর ও পবন ভার্মাকে দল থেকে বহিষ্কারের কথা জানিয়ে দেয়। দল থেকে বহিষ্কারের পর প্রশান্ত কিশোর ফের একটি ট্যুইটে নীতীশ কুমারকে মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শুভেচ্ছা জানিয়ে লেখেন, ভগবান আপনার মঙ্গল করুন।

Comments
Loading...