বাংলা থেকে রাজ্যসভায় সীতারাম ইয়েচুরিকে পাঠানোর প্রস্তাব সম্ভবত ফের নাকচ করতে চলেছে সিপিএম পলিটব্যুরো। আগামী দু’একদিনের মধ্যেই সিপিএম শীর্ষ নেতৃত্ব এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে। আর সেক্ষেত্রে বাংলা থেকে রাজ্যসভায় সিপিএমের প্রার্থী কে হতে পারেন তা নিয়ে বিকল্প ভাবনা শুরু করে দিল আলিমুদ্দিন স্ট্রিট। সূত্রের খবর, বাংলা থেকে এবার রাজ্যসভায় সিপিএমের প্রার্থী হতে পারেন প্রাক্তন সাংসদ এবং দলের পলিটব্যুরো সদস্য মহম্মদ সেলিম।

কেন জটিলতা ইয়েচুরির নামে
২০১৫ সালে সীতারাম ইয়েচুরি যখন সিপিএমের সাধারণ সম্পাদক হয়েছিলেন, সেই সময় তিনি বাংলা থেকেই রাজ্যসভার সাংসদ ছিলেন। তখনই দলের অন্দরে প্রশ্ন উঠেছিল, দলের সাধারণ সম্পাদক সাংসদ থাকতে পারেন না। কেউ কেউ চেয়েছিলেন, ইয়েচুরি রাজ্যসভা থেকে ইস্তফা দিন। কিন্তু সেই সময় সিদ্ধান্ত হয়, সীতারাম ইয়েচুরি সাংসদ হিসেবে নির্ধারিত টার্ম শেষ করবেন।
এরপর গতবার রাজ্যসভা নির্বাচনে ফের ইয়েচুরিকে সংসদে পাঠাতে চেয়েছিলেন সূর্যকান্ত মিশ্ররা। কিন্তু বাধ সাধে সিপিএম পলিটব্যুরো। জানিয়ে দেওয়া হয়, দলের সাধারণ সম্পাদক সাংসদ হতে পারেন না। কিন্তু তার চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ, কমিউনিস্ট পার্টির সাধারণ সম্পাদক কীভাবে কংগ্রেসের সমর্থনে সাংসদ হবেন? মূলত, এই আদর্শগত কারণেই আটকে যায় ইয়েচুরির রাজ্যসভায় যাওয়ার প্রশ্ন। কারণ, সেই সময় নিজেদের বিধায়ক সংখ্যার জোরে ইয়েচুরিকে রাজ্যসভায় পাঠানোর ক্ষমতা এ রাজ্যের সিপিএম বা বামেদের ছিল না।
সূত্রের খবর, এবারও আলিমুদ্দিন স্ট্রিট চাওয়া সত্ত্বেও, সম্ভবত এই কারণেই বাংলা সিপিএমের প্রস্তাব খারিজ করতে চলেছে সিপিএম পলিটব্যুরো। আগামী ১৪ ও ১৫ মার্চ সিপিএমের পলিটব্যুরো মিটিং রয়েছে। কিন্তু যেহেতু এবার রাজ্যসভায় মনোনয়ন জমা দেওয়ার শেষদিন ১৩ মার্চ, তাই আগামী দু’একদিনের মধ্যেই দিল্লিতে সিপিএমের অ্যাভেলেবল পলিটব্যুরো সদস্যরা (যাঁরা দিল্লিতে উপস্থিত) এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন, এবং তা রাজ্য সিপিএম নেতৃত্বকে জানিয়ে দেবেন।

আরও জানতে ক্লিক করুন, ১৭ রাজ্যের ৫৫ রাজ্যসভা আসনে ভোট ২৬ মার্চ, দেখে নিন কোন রাজ্যে কত আসন

সম্ভাবনায় মহম্মদ সেলিম
সূত্রের খবর, কংগ্রেস এবারও জানিয়ে দিয়েছে, সিপিএম ইয়েচুরিকে রাজ্যসভায় পাঠাতে চাইলে তারা সমর্থন করবে। অন্য কোনও সিপিএম নেতাকে সমর্থন করতে তারা এখনও রাজি নয়। কিন্তু সিপিএম সূত্রে খবর, ইয়েচুরির নাম খারিজ হয়ে গেলেও রাজ্যসভায় তারা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে। কংগ্রেস সমর্থন করুক, আর নাই করুক। আলিমুদ্দিন স্ট্রিট সূত্রের খবর, সেক্ষেত্রে এবার রাজ্যসভার প্রার্থী হওয়ার সম্ভাবনা মহম্মদ সেলিমের। প্রথমত, সেলিম সংসদে পরিচিত মুখ। সংসদে জোরের সঙ্গে যে কোনও বিষয়ে সওয়াল তিনি করতে পারবেন। দ্বিতীয়ত, তিনি রাজ্যে কংগ্রেসের সঙ্গে জোটপন্থী মুখ। এবং সিপিএম চাইছে, আসন্ন পুরসভা ভোটে তো বটেই, ২০২১ বিধানসভা নির্বাচনেও কংগ্রেসের সঙ্গে আসন সমঝোতা করেই লড়তে। ২০১৯ লোকসভায় জোট ভেঙে যাওয়ার যে মাশুল দু’দলকেই দিতে হয়েছে, তার যেন আর পুনরাবৃত্তি না হয়। সাম্প্রতিক তিন বিধানসভা উপনির্বাচনেও বাম-কংগ্রেস জোট করে লড়েছে। আগামী ২৬ মার্চের রাজ্যসভার ভোটেও সেই ধারাই বহাল রাখতে চায় আলিমুদ্দিন স্ট্রিট। সেই কারণেই সেলিমের মতো হেভিওয়েট নেতাকে রাজ্যসভায় প্রার্থী করতে চাইছে তারা।

ধারাবাহিকভাবে পাশে থাকার জন্য The Bengal Story র পাঠকদের ধন্যবাদ। আমরা শুরু করেছি সাবস্ক্রিপশন অফার। নিয়মিত আমাদের সমস্ত খবর এসএমএস এবং ই-মেইল এর মাধ্যমে পাওয়ার জন্য দয়া করে সাবস্ক্রাইব করুন। আমরা যে ধরনের খবর করি, তা আরও ভালোভাবে করতে আপনাদের সাহায্য আমাদের উৎসাহিত করবে।

Login Support us

You may also like

Omar Abdullah Released