পরিযায়ী শ্রমিকদের হয়রানি নিয়ে কেন্দ্র ও রাজ্যগুলিকে ভর্ৎসনা সুপ্রিম কোর্টের

লকডাউনের জেরে দুর্দশা চরম হয়েছে পরিযায়ী শ্রমিকদের। তা দূর করতে অবশেষে স্বতঃপ্রণোদিত মামলা করল সুপ্রিম কোর্ট। এই ইস্যুতে মঙ্গলবার কেন্দ্র এবং রাজ্যগুলির ভূমিকায় তীব্র অসন্তোষ প্রকাশ করেছে বিচারপতি অশোক ভূষণ, বিচারপতি সঞ্জয় কিষাণ কৌল এবং বিচারপতি এমআর শাহের তিন সদস্যের বেঞ্চ। সুপ্রিম কোর্ট জানায়, লকডাউনের মধ্যে পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য সরকারের তরফে যে সমস্ত পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে তা ‘অপর্যাপ্ত এবং ‘ত্রুটিপূর্ণ’। পরিযায়ী শ্রমিকদের বিনামূল্যে খাদ্য, আশ্রয় ও পরিবহণের ব্যবস্থা করার জন্য কেন্দ্র এবং রাজ্য সরকারগুলিকে নির্দেশ দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। সেইসঙ্গে শ্রমিকদের সহায়তায় কী কী পদক্ষেপ করা হয়েছে, তা জানতে আগামী দু’দিনের মধ্যে কেন্দ্র এবং রাজ্য সরকারগুলির থেকে রিপোর্ট চেয়েছে শীর্ষ আদালত।
এর আগে ভিন রাজ্যে আটকে পড়া শ্রমিকদের স্বার্থ রক্ষায় দাখিল একটি আবেদন খারিজ করে দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্টের আর একটি বেঞ্চ। যে সমস্ত শ্রমিক রাজ্যে রাজ্যে আটকে পড়েছেন তাঁদের চিহ্নিত করে দেখভালের দায়িত্ব নেওয়া এবং তাঁদের বাড়ি ফেরার ব্যবস্থা করার জন্য সরকারকে নির্দেশ দেওয়ার আর্জি জানিয়ে শীর্ষ  আদালতে সেই মামলা করা হয়েছিল। কিন্তু তখন এই বিষয়ে হস্তক্ষেপ করতে অস্বীকার করে সর্বোচ্চ আদালতের বেঞ্চ। এবার সেই অবস্থান থেকে সরে এসে বিভিন্ন রাজ্যে আটকে পড়া পরিযায়ী শ্রমিকদের সমস্যা এবং দুর্দশা নিয়ে স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে হস্তক্ষেপ করল সুপ্রিম কোর্ট।
লকডাউনে আটকে পড়া পরিযায়ী শ্রমিকদের দুর্দশা নিয়ে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত রিপোর্টকে প্রামাণ্য হিসেবে গ্রহণ করেছে বিচারপতি অশোক ভূষণের বেঞ্চ। সুপ্রিম কোর্ট জানায়, বিভিন্ন প্রান্তে বহু পরিযায়ী শ্রমিক আটকে পড়েছেন। অনেকে পথ বা হাইওয়ে ধরে হেঁটে, সাইকেলে বা অন্য কোনও উপায়ে বাড়ি ফিরছেন। এই সমস্ত শ্রমিকদেরকে প্রশাসনের তরফে খাদ্য এবং জল দেওয়া হচ্ছে না, এমন অভিযোগ এসেছে। এই সমস্ত পরিযায়ী শ্রমিকদের বিনামূল্যে ‘পর্যাপ্ত পরিবহণ, খাদ্য এবং আশ্রয়ের ব্যবস্থা করতে হবে’ বলে কেন্দ্র এবং রাজ্য সরকারগুলিকে নির্দেশ দেয় সুপ্রিম কোর্ট।

Comments
Loading...